সিএসসি স্কলারশিপ: চীনা সরকারের শিক্ষা বৃত্তি যেভাবে পেতে পারেন!

মর্যাদাপূর্ণ  সিএসসি স্কলারশিপ, ২০২২-২৩ দিয়ে আপনার অধ্যয়নের ভিত্তি রচনা করুন। এই নিবন্ধে আমরা সিএসসি স্কলারশিপ কী, এর সুবিধা এবং ধাপে ধাপে আবেদনের পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করব।

CSC স্কলারশিপ 2022-2023 আন্তর্জাতিক ছাত্রদের জন্য একটি সম্পূর্ণ অর্থায়িত বৃত্তি। এই বৃত্তিটি 280 টিরও বেশি চীনা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক, স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডি অধ্যয়নের জন্য উপলব্ধ। চাইনিজ গভর্নমেন্ট স্কলারশিপ 2022 আবাসন, মৌলিক স্বাস্থ্য বীমা এবং 3500 ইউয়ান পর্যন্ত মাসিক ভাতা কভার করে।

এই বৃত্তি শিক্ষা, সংস্কৃতি, বাণিজ্য, শিক্ষা ও রাজনীতিতে বিনিময়, অন্যান্য দেশ এবং চীনের মধ্যে সহযোগিতা এবং পারস্পরিক বোঝাপড়াকে উন্নীত করতে চায়। বিশ্বের সমস্ত দেশ থেকে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে সক্ষম।

চীনা সরকারী বৃত্তির জন্যসিএসসি পোর্টালে অনলাইনে আবেদন জমা দিতে হবে। এর পরে প্রার্থীকে নির্বাচিত বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করতে হবে এবং CSC বৃত্তির আবেদনপত্র সহ প্রয়োজনীয় নথিপত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠাতে হবে।

তাহলে চলুন শুরু করি – আপনিও যেভাবে পেতে পারেন এই সিএসসি স্কলারশিপ।

সিএসসি স্কলারশিপ – কি কি প্রয়োজন হয়?

স্কলারশিপ আবেদনের পূর্ব শর্ত কি?

  • আন্তর্জাতিক ছাত্র যারা চিনের নাগরিক নয়।
  • চীনা সরকার বা অন্য কোন চীনা প্রতিষ্ঠান থেকে ইতোমধ্যে বৃত্তি পেয়েছেন যারা তারাও বিবেচ্য নয়।

ন্যূনতম বয়স কত হওয়া চাই?

  • স্নাতক ডিগ্রী অর্জনের জন্য ছাত্রদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা – ২৫ বছরের নিচে হতে হবে।
  • স্নাতকোত্তর ডিগ্রির জন্য বয়সসীমা – ৩৫ বছর।
  • পিএইচ.ডি. ডিগ্রী, বয়স সীমা – ৪০ বছর।

শিক্ষাগত যোগ্যতা কেমন হতে হবে?

  • স্নাতক কোর্সের জন্য উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের স্কুল সার্টিফিকেট ।
  • মাস্টার্সের জন্য স্নাতক ডিগ্রি আবশ্যক।
  • ডক্টরেটের জন্য মাস্টার্স ডিগ্রি।

সিএসসি স্কলারশিপ ২০২২ এর সুবিধা কি কি?

সিএসসি স্কলারশিপ পেলে আপনাকে নিম্নলিখিত সুবিধাদি দেওয়া হবে।

  • টাইপ A –  CSC স্কলারশিপ :  রেজিস্ট্রেশন ফি, আবাসন (বিশ্ববিদ্যালয় ডরমিটরিতে অন্য ব্যক্তির সাথে শেয়ার করা রুমে), মৌলিক চিকিৎসা বীমা এবং ব্যক্তিগত খরচের জন্য একটি মাসিক ভাতা (প্রতি মাসে ২৫০০ এবং ৩৫০০ ইউয়ান, যা প্রায় ৩৫০ এবং ৫০০ মার্কিন ডলার সমমুদ্রার।
  • টাইপ B- CSC স্কলারশিপ:  টাইপ A স্কলারশিপের মতোই সুবিধা প্রদান করে, ব্যক্তিগত খরচের জন্য মাসিক ভাতা দেওয়া হয় না।
  • টাইপ C- স্কলারশিপ : এটি হল এক ধরনের আংশিক বৃত্তি যার সামান্য সুবিধা রয়েছে।

টাইপ A স্কলারশিপ সবচেয়ে বেশী আকর্ষণীয়। তাই এর উচ্চ চাহিদার কারণে প্রতিযোগিতাও বেশী।  আপনি যদি জীবনযাত্রার ব্যয় বহন করতে পারেন তবে আপনার টাইপ- B বা টাইপ-C সিএসসি বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারেন। কারণ, এর জন্য প্রতিযোগীতা কম হওয়ায় পাওয়ার চান্স বেশী থাকবে।

কিভাবে সিএসসি বৃত্তির জন্য আবেদন করবেন?

চীনা সরকার প্রদত্ত এই বৃত্তির আবেদন পদ্ধতি অনেকটা সহজ। এর জন্য আপনাকে নিচের কাজগুলো করতে হবে –

  • সিএসসি স্কলারশিপের জন্য আবেদনের সময়কাল সাধারণত প্রতি বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত। তবে, বিশেষ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে সময়সীমা ভিন্ন হতে পারে। তাই আবেদন করার আগে আপনার পছন্দসই বিশ্ববিদ্যালয়ের সময়সীমা মিলিয়ে দেখতে হবে।
  • CSC স্কলারশিপের আবেদন প্রথমে অনলাইনে সম্পন্ন করতে হবে। আপনি এই পোর্টালের মাধ্যমে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করতে পারেন।
  • অনলাইন আবেদনপত্রের শুরুতে, আপনাকে এই স্কলারশিপের তিনটি ধরণের মধ্যে একটি বেছে নিতে হবে এবং অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্য থেকে আপনার পছন্দের এক বা একাধিক বিশ্ববিদ্যালয় নির্বাচন করতে হবে।
  • চীনা সরকারী বৃত্তির অনলাইন আবেদনের সমস্ত তথ্য পূরণের পর আপনাকে অবশ্যই পিডিএফ ফরম্যাটে প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র আপলোড করে সংযুক্ত করতে হবে (তালিকাটি নীচে দেওয়া আছে)।
  • স্কলারশীব আবেদন জমা দেওয়ার পরে, এই অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করুন।
  • সিএসসি স্কলারশিপের আওতায় অনুমোদিত চাইনিজ বিশ্ববিদ্যালয় এবং কোর্স এখানে নির্বাচন করতে পারেন।
  • স্কলারশীপ আবেদনের পর আপনার পছন্দের চাইনিজ ইউনিভার্সিটিতে আলাদাভাবে ভর্তির আবেদন দাখিল করতে হবে কিনা তাও পরীক্ষা করুন।
  • যদি সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি অনলাইন আবেদনের প্রয়োজন হয় তবে সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে এই আবেদনটি জমা দিন এবং আপনার চীনা সরকারী বৃত্তির আবেদনটি সাথে সংযুক্ত করুন।
  • স্কলারশীপ আবেদনের অংশ হিসেবে সংযুক্ত কাগজ পত্রের দুই সেট তৈরি করতে হবে যার তালিকা নিচে উল্লেখ করা হয়েছে। এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিকানায় প্রেরণ করতে ডাকযোগে প্রেরণ করতে হবে।
  • জুলাই মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত আবেদনের ফলাফল প্রকাশ হয়ে থাকে।

সিএসসি স্কলারশিপে আবেদনে কি কি কাগজ পত্র লাগে?

আবেদনপত্রটি আপনি চীনা সরকারী বৃত্তির অফিসিয়াল পৃষ্ঠায় রেজিস্ট্রেশন করার পর দেখতে পাবেন

  • সর্বোচ্য লেখাপড়ার সার্টিফিকেট এবং ট্র্যানস্ক্রিপ্ট নোটারি দ্বারা সত্যয়িত হতে হবে।
  • আপনাকে অবশ্যই একজন ডাক্তার দ্বারা বিদেশী ছাত্রদের জন্য স্বাস্থ্য পরীক্ষার ফর্ম  পূরণ করতে হবে এবং পূরণকৃত ফর্মটির অনুলিপি আবেদন পত্রের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।
  • আপনার স্বাস্থ্য পরীক্ষার ফর্মটি ডাক্তার দ্বারা সিলমোহরসহ স্বাক্ষরিত হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করুন। এই ফর্ম আবেদনের তারিখ থেকে ৬মাসের বেশি পুরানো যাতে না হয় সেটিও নিশ্চিত হতে হবে।
  • ইংরেজি বা চীনা ভাষায় লেখা সিভি সংযুক্ত করতে পারেন যাতে আপনার বিশেষত্ব এবং আপনার একাডেমিক তথ্য ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ইত্যাদি উল্লেখ থাকতে পারে।
  • পাসপোর্টের অনুলিপি।
  • যদিও এই বৃত্তির আবেদনের জন্য এটি একটি অপরিহার্য নয়, তথাপি আপনার যদি চিনা ভাষা শেখার বিষয়ে এইচএসকে সার্টিফিকেট থাকে তবে আপনি এটিও সংযুক্ত করতে পারেন।
  • আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, আপনি যেখানে ভর্তি হতে চান সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের কাছ থেকে একটি স্বীকৃতি পত্র যদি সংগ্রহ করতে পারেন তাহলে তা আপনার গবেষণাসহ উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে খুব সহায়ক হয়। টিপস: আপনার পছন্দসই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি কীভাবে খুঁজে পাবেন? শুধু google.com-এ যান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম লিখুন উদাহরণস্বরূপ Zhejiang University Faculty of Biochemistry বা Life Sciences. আপনি অনুষদের তালিকা দেখতে পাবেন। প্রফেসরের সাথে ইমেল যোগাযোগ শুরু করে অব্যাহত রাখুন।
  • অন্যান্য নথি: গবেষণা কাজে আপনার যদি কোন প্রকাশনা থাকে, তাহলে অবশ্যই সেগুলি সংযুক্ত করতে হবে।
  • যদি কোনো নির্দিষ্ট চীনা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি আবেদন স্ক্রীনিং বা একটি আবেদন প্রক্রিয়া ফি প্রয়োজন হয় তাহলে তা জমা দিন। এর রসিদ প্রিন্ট করুন এবং উপরে তালিকাভুক্ত আপনার নথির দুটি সেটের সাথে সংযুক্ত করুন

দ্রষ্টব্য: আপনার CSC বৃত্তির আবেদনের নথিগুলি সরাসরি সেই চাইনিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিকানায় পাঠানোর জন্য একটি নির্ভরযোগ্য কুরিয়ার পরিষেবা বেছে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে যাতে তারা সময়মতো পৌঁছায়।

কেন চীনে পড়াশুনা করবেন?

বিশ্বমানের শিক্ষা

  • চায়নায় ২০২০ সালে ৩৭৭০৫৪ জন আন্তর্জাতিক ছাত্র উচ্চ শিক্ষার্থে গমন করেছে। কোর্স কারিকুলাম ইংরেজী ভাষায় অধ্যায়নের সুযোগ থাকায় চিন আন্তর্জাতিক ছাত্রদের নিকট জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। এছাড়া, চিনের একাডেমিক ডিগ্রিগুলির বিশ্বমান বজায় রাখার লক্ষ্যে প্রায় ৭০ দেশের সাথে অংশীদারিত্বের শিক্ষাদান কর্মসূচি চালু করেছে।
  • বিশ্ব অর্থনীতিতে চিনের অবস্থান দিন দিন শক্তিশালী হচ্ছে।
  • চীনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে সরকারের অংশগ্রহণের ফলে সারা দেশে উচ্চ মানের শিক্ষার পরিবেশ তৈরি হয়েছে।  আপনি চীনে যেখানেই পড়াশোনা করার সিদ্ধান্ত নেন না কেন, আপনি নিশ্চিত হতে পারেন যে আপনার শিক্ষা প্রথম শ্রেণীর হবে।

পেশাগত সুযোগ কেমন?

চীন সম্প্রতি জাপানকে পেছনে ফেলে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতিতে পরিণত হয়েছে। যার ফলে, আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য আরও বেশি চাকরির সুযোগ তৈরি হবে। আপনি যদি একটি চীনা কোম্পানিতে কাজ করতে চান তবে আপনাকে ভাষা আয়ত্ত করতে হবে এবং তাদের সংস্কৃতি সম্পর্কে প্রাথমিক জ্ঞান থাকতে হবে।

একটি চীনা কোম্পানিতে কাজ করার ক্ষমতা আপনাকে প্রায় যেকোনো বড় অর্থনীতিতে সফল হওয়ার সুযোগ দেবে। একজন আন্তর্জাতিক ছাত্র হিসাবে, আপনি ভাষা শিখবেন, সংস্কৃতি জানতে পারবেন এবং শ্রমবাজার সম্পর্কে ধারণা পাবেন, যা চাকরির প্রতিযোগিতায় আপনার সক্ষমতা বৃদ্ধি করবে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য এবং জাপানের তুলনায়, চীনে দৈনন্দিন জীবনযাত্রার খরচ উল্লেখযোগ্যভাবে সস্তা। আপনি প্রায় ১০০ থেকে ২০০ টাকার মধ্যে চলনসেই একটি খাবার কিনতে পারবেন। পাবলিক ট্রান্সপোর্টে একটি রাউন্ড ট্রিপে ৫০ টাকার কম খরচ হয়।

ভাড়া, যা বিদেশে জীবনের সবচেয়ে ব্যয়বহুল হতে পারে, তাও খুব সস্তা। রাজধানী – বেইজিং-এ একটি ছাত্রাবাসের গড় খরচ প্রতি মাসে ১০,০০০ টাকার মত ৷

উপসংহার

4,000 বছরেরও বেশি ইতিহাসের সাথে, চীনারা ব্যবসা, জ্যোতির্বিদ্যা, মার্শাল আর্ট, দর্শন এবং গণিত সহ প্রায় সমস্ত বিষয়ে উদ্ভাবক হয়েছে, এবং অন্যান্যদের মধ্যে শিল্প, সাহিত্য, ধর্মের অধ্যয়নে প্রচুর অবদান রেখেছে। .যদিও প্রথমে চীনা সংস্কৃতির সাথে খাপ খাইয়ে নেওয়া কঠিন হতে পারে, এমন একটি সমৃদ্ধ এবং উন্নত সংস্কৃতির অভিজ্ঞতা অর্জনের পুরষ্কার অন্য কোন অভিজ্ঞতার মতো নয়।

চীনও বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম দেশ। ভূগোল হিমালয়ের পর্বত থেকে পরিবর্তিত হয়, দক্ষিণ-পশ্চিমে, গোবি মরুভূমিতে, উত্তরে, উপকূলীয় পূর্বে আপনি কোথায় আছেন তার উপর নির্ভর করে আপনি পাহাড় বা সৈকত পেতে পারেন। এই মহান দেশ অন্বেষণ করা সম্ভব, এমনকি উচ্চ গতিতে (এবং সাশ্রয়ী মূল্যের!), প্রধান শহরগুলির সাথে সংযোগকারী ট্রেনগুলির কারণে। আপনি চীনের কোন অংশে অধ্যয়ন করার সিদ্ধান্ত নেন তা বিবেচ্য নয়, আপনার গ্যারান্টি রয়েছে যে এটি আপনার জীবনকে বদলে দেবে এবং অভিজ্ঞতাটি অবিস্মরণীয় হবে!

4 thoughts on “সিএসসি স্কলারশিপ: চীনা সরকারের শিক্ষা বৃত্তি যেভাবে পেতে পারেন!”

  1. I have been exploring for a little for any high-quality articles
    or blog posts in this sort of area . Exploring
    in Yahoo I eventually stumbled upon this website.
    Studying this information So i am happy to express that I have a very excellent uncanny feeling I came upon just what I needed.
    I most undoubtedly will make certain to don?t forget this site and give it a glance on a continuing
    basis.

  2. Simply wish to say your article is as surprising. The clarity in your post is just great and i could assume you’re knowledgeable in this
    subject. Well with your permission allow me to seize your RSS feed to stay
    updated with drawing close post. Thanks 1,000,000 and please keep
    up the enjoyable work.

  3. Hi, i feel that i noticed you visited my weblog so i got here to go back
    the prefer?.I’m attempting to in finding things to improve my
    site!I suppose its ok to use a few of your concepts!!

Comments are closed.