73 / 100

আপনি কি ওভেন ফেব্রিক পছন্দ করেন বা উইভিং সম্পর্কে কিছুটা বিস্তারিত ধারণা পেতে চান? তাহলে, উইভিং কাকে বলে, উইভিং প্রক্রিয়ায় কিভাবে কাপড় তৈরি হয় – পোষ্টটি আপনাকে এই বিষয়ে knowledge sharing এ ভূমিকা রাখতে পারে।

কাপড় তৈরির একটি প্রযুক্তি হিসাবে উইভিং এর প্রচলন বহুকাল ধরেই। সুতা বা ইয়ার্ন থেকে কাপড় তৈরির বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে। যেমন- নিটিং, ক্রোচেট (crochet), ফেল্টিং এবং উইভিং। এগুলোর মধ্যে উইভিং হল সবচেয়ে প্রাচিনতম এবং জনপ্রিয় হিসাবে সমাদৃত। হাজার বছরেরও অধিক সময় যাবত কাপড় উৎপাদনে উইভিং ব্যবহৃত হয়ে আসছে। কালের পরিক্রমায় উইভিং পদ্ধতিতে প্রযুক্তিগত উন্নতি হয়েছে।

উইভিং কাকে বলে?

উইভিং কাকে বলে – কথাটির সহজ উত্তর হল ইহা এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে সমকোনে দু’টি ইয়ার্নের পরস্পর interlacing বা মিশে যাওয়ার মাধ্যমে কাপড় বা ফেব্রিক উৎপাদন হয়।আমরা জানি, প্রাকৃতিক বা কৃত্রিম কোন ফাইবারকে প্যাচানোর (twisting) এর মাধ্যমে ইয়ার্ন তৈরি হয়। এই ইয়ার্ন থেকেই উইভিং প্র্রক্রিয়ায় ফেব্রিক বা কাপড়  তৈরি হয়।

কাপড় তৈরির আরোও অন্যান্য পদ্ধতি রয়েছে যেমন নিটিং (knitting), ফেল্টিং (felting), ব্র্যাইডিং (braiding) ইত্যাদি।

উইভিং কাজের জন্য যে দু’ ধরণের ইয়ার্ণের প্রয়োজন হয় তার একটি ভার্টিকাল বা লম্বালম্বি রেখা বরাবর থাকে এবং অপরটি হরিজোন্টালি বা অনুভূমিক রেখা বরাবর থাকে। কাপড়েরর ভার্টিকাল ইয়ার্নকে র‌্যাপ (wrap) বলা হয় এবং হরিজোন্টাল ইয়ার্নকে ওয়েফ্ট (weft) বলা হয়। যে পদ্ধতি এই দুই সেট একত্রে মেশানো হয় তার উপরি নির্ভর করে উভেন কাপড়ের গুনগত মান।

যে মেশিনের সাহায্যে কাপড় উইভ করা হয় বা কাপড় বোনা হয় তাকে লুম বলে। লুম হচ্ছে এক প্রকার ডিভাইস। এর সাহায্যে wrap ইয়ার্নগুলে উলম্ব রেখা বরাবর যথাস্থানে আটকিয়ে রেখে তার ভিতর দিয়ে weft ইয়ার্নগুলেকে প্রবেশ করিয়ে জালের মত বোনা হয়।

উপরের আলোচনা থেকে উইভিং এর সঙ্গা আরোও পরিস্কার ভাবে দেওয়া যায়। যেভাবে wrap এবং weft ধরণের ইয়ার্ন একটির সাথে অপরটি মেশানো হয় তাকেই উইভিং বলে।

বেশীরভাগ ওভেন ফেব্রিক দুই পদ্ধতিতে উৎপাদন করা হয় যেমন- প্লেইন উইভ, সাটিন বা টুইল উইভ। উভেন জাতীয় কাপড় এক রঙ দিয়ে সাদাসিদে ভাবেও তৈরি করা যায় আবার  একাধিক রঙ দিয়ে জাকজমকভাবেও তৈরি করা যায়।

উইভিং কিভাবে কাজ করে?

আমরা আগেই জেনেছি, সাধারনত: লুম যন্ত্রের সাহায্যে উইভিং প্রক্রিয়ায় দুই সেটের সুতা পরস্পর সমকোনে একে অপরের সাথে মিশিয়ে কাপড় উৎপাদন করা হয়। যেখানে ইয়ার্নের wrap সেট উলম্বভাবে থাকে এবং weft সেট অনুভূমিক রেখা বরাবর থাকে।  এক একটি wrap সেট ইয়ার্নের ভিতর দিয়ে নিডল বা যন্ত্রের সাহায্যে এক একটি weft সেটের ইয়ার্ন সেলাইয়ের মত উপর-নিচ করে মিলিয়ে দেওয়া হয়।

এক একটি wrap সুতাকে বলা হয় end এবং এক একটি weft সুতাকে বলা হয় pick. wrap সুতাগুলোকে পরস্পর সমান্তরালভাবে লুমের সাথে শক্তভাবে লাগানো হয়। বাজারে বিভিন্ন প্রকারের লমু রয়েছে।

Wrap এবং weft সুতা পরস্পর interlace বা মিলানোর জন্য তিনটি কাজ পর্যায়ক্রমিকভাবে বার বার করা হয় যার ফলে ওভেন ফেব্রিক তৈরি হয়।

এই তিনটি কাজকে primary motion বলা হয় –

  • শেডিং (shedding): এর মাধ্যমে wrap সুতাগুলিকে কোন কাঠির সাহায্যে একটির পর আরেকটি উপর-নিচ করে রাখা হয় যার ফলে তার দু’টি সমতলে বিভক্ত হয়ে যায়।
  • পিকিং (picking): Weft ইয়ার্নকে হাত বা shuttle এর সাহায্যে শেডের খোলা অঞ্চলের ভিতর দিয়ে প্রবেশ করানোর প্রক্রিয়াকে পিকিং বলে।
  • বিটিং-আপ বা বেটেনিং (beating-up or battening): পিকিং প্রক্রিয়ায় যে weft ইয়ার্ন প্রবেশ করানো হয় তা পিছনে চাপ দেওয়ার ইতোমধ্যে তৈরি হওয়া উভেন কাপড়ের সাথে লাগিয়ে দেওয়া। এরফলে শেডের ভিতর দিয়ে প্রবেশকৃত নতুন নতুন প্রত্যেকটি weft ইয়ার্ন কাপড়ের সাথে আঁটশাঁট হয়ে লেগে যায়।

 

Wrap ইয়ার্ন যে দুই ভাগে বিভক্ত হয় তা দুই সমতলে চলে। একটি উপরে আরেকটি নিচে। এই দুই ভাগের ভিতরে একটি খোলা অঞ্চলের তৈরি হয় যাকে বলা হয় শেড (shed). এই শেডের ভিতর দিয়েই weft ইয়ার্ন shuttle এর সাহায্যে আড়াআড়িভাবে সোজা গতিতে প্রবেশ করানো হয়। তারপর লুম প্রযুক্তির মাধ্যমে শেড এর উপরের ইয়ার্নগুলি নিচে নামানো হয় এবং নিচের ইয়ার্ন উপরে তোলা হয় যার ফলে সোজা গতিতে shuttle বিপরীত মুখ বরাবর অতিক্রম করার সুযোগ পায়। এই প্রক্রিয়া পুনরাবৃত্তির ফলে কাপড়ের জাল তৈরি হয় যা beating এর মাধ্যমে compact করা হয়।

লুমের দ্বিতীয় পর্যায়ের গতি (secondary motion) আবার দুই ধরণের –

  • Let of motion
  • Take of motion

এছাড়াও লুমের রয়েছে তৃতীয় পর্যায়ের গতি (tertiary motion) যাকে stop motion বলা হয়। যার কাজ হল সুতা ছিড়ে গেলে লুমকে থামিয়ে দেয়।

দু’টি প্রধান stop motion হল –

  • Wrap stop motion
  • Weft stop motion

ওভেন ফেব্রিক কাকে বলে?

অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন যে ওভেন ফেব্রিক কাকে বলে বা ওভেন ফেব্রিক কি? উত্তরটি বাস্তবেই খুব সহজ। এক কথায় বলেতে গেলে উইভিং প্রক্রিয়ায় উৎপাদিত কাপড়কে ওভেন ফেব্রিক বলে। ওভেন ফেব্রিক তির্যকভাবে টানলে প্রসারিত হয়।

সাধারনত: নন ওভেন কাপড়ের চেয়ে ওভেন ফেব্রিক গঠনগত দিক দিয়ে ভাল এবং শক্তিশালী হয়ে থাকে। এজন্যই ওভেন ফেব্রিকের ব্যবহার সবচেয়ে বেশী হয় যেমন, কটন দিয়ে শার্টের কাপড়, সিল্ক দিয়ে যেকোন পোষাক এবং উল দিয়ে সোয়েটার বানিয়ে আমরা গায়ে দেই।

 

ওভেন ফেব্রিক কত প্রকার- কি কি?

ওভেন দু’টি ব্রড ক্যাটাগরিতে ভাগ করা যায় –

  • Basic বা ‍Simple weave
  • Compound weave

Basic weave পুনরায় তিন ভাগের ভাগ করা যায়, যেমন-

  • Plain weave:

এই ধরণের ওভেন ফেব্রিক সাধারণ প্রকৃতির এবং একটির পর একটি wrap এবং weft ইয়ার্নের পরস্পর সংমিশ্রনে তৈরি হয়। যেকোন ফাইবার থেকে প্রস্তুতকৃত ইয়ার্ন দিয়ে এই প্রকারের ওভেন ফেব্রিক তৈরি করা যায়। বেশীরভাগ ওভেন কাপড় এই প্রক্রিয়ায় তৈরি করা হয়।

Plain weave এর পদ্ধতি 2 ends x 2 picks অনুযায়ি পুনরাবৃত্তি হয়। দুই harness বিশিষ্ট লুম দিয়ে এই কাপড় তৈরি করা যায়।

  • Twill weave:

এই টাইপের কাপড় তির্যক লাইন বরাবর ১৫ থেকে ৭৫ ডিগ্রি কোন অনুযায়ি চলে। কোন কোন টুইল উইভ কাপড়ের পিছনের দিকে তাকালে এই তির্যক রেখা পরিস্কারভাবে দেখা যায়।

Twill weave উপরে এবং নিচে সংখ্যার মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়। যেমন ২/১ টুইল উইভ এর অর্থ হল দু’টি উপরে এবং একটি নিচে। প্রায় সাত ধরণের টুইল উইভ রয়েছে। যেমন ১/২ টুইল, ২/১ টুইল, ২/২ টুইল, ২/৩ টুইল, ৩/২ টুইল, ৩/৩ টুইল।

  • Satin weave:

ইহা এক ধরণের basic weave যেখানে চার বা ততোধিক weft ইয়ার্ন থাকে যা wrap ইয়ার্নের ভিতর দিয়ে ভাসমান আকারে বিদ্যমান থাকে। চারটি wrap ইয়ার্ন একটি weft ইয়ার্নের উপর floating অবস্থায় থাকে। এই float ইয়ার্ন ওভেন কাপড়কে দীপ্তিময় উজ্জল হিসাবে শোভা বর্ধন করে।

Compound weave পুনরায় নিম্নলিখিত প্রকারের হয়:

  • ডবি উইভ (dobby weave)
  • জ্যাকুয়ার্ড উইভ (jacquard weave)
  • ডাবল ক্লোথ এবং ডাবল উইভ (double cloth and double weave)
  • পিক্ব (pique)
  • পাইল ফেব্রিকস (pile fabrics)
  • সারফেস ফিগার উইভ (suface figure weave)

ওভেন ফেব্রিক এর বৈশিষ্ট কি কি?

  • ইহা সবচেয়ে প্রচিনতম পদ্ধতি এবং সর্বাধিক ব্যবহৃত ফেব্রিক।
  • ইহা উইভিং প্রক্রিয়ায় উৎপাদন করা হয়।
  • Wrap এবং weft উভয় প্রকার ইয়ার্ন ওভেন ফেব্রিক তৈরিতে ব্যবহৃত হয়।
  • ইহা নিট এবং নন ওভেন ফেব্রিকের তুলনায় অধিক টেকসই এবং আরামদায়ক।
  • কাপড়ের প্রস্থ সাধারনত: ৫৯/৬০/৬১ ইঞ্চি।
  • মসৃন প্রকৃতির হয়।
  • স্বাভাবিক তাপে iron করতে হয়।