শাওমি সবচেয়ে কম দামি ফোন: খুজে নিন ১০০০০ টাকার মধ্যে আপনার শাওমি!

শাওমি সবচেয়ে কম দামি ফোন কোনটি – প্রশ্নটি বারবারই করতে শুনা যায়। এখনকার বাজারে সবচেয়ে কমদামি মোবাইল ফোন বলতে যদি শাওমির ১০০০০ টাকার মধ্যে ফোন সেটের কথা বলা হয়- তাহলে মনে হয় কথাটি অবাস্তব শুনাবেনা।

শাওমি সম্পর্কে আপনি নিশ্চই জানেন। নতুন ভাবে যাত্রা শুরু করা একটি মোবাইল ফোন উৎপাদনকারি প্রতিষ্ঠান হিসাবে খুব দ্রুতই বড় বড় কম্পানিকে পিছনে ফেলিয়ে মার্কেটে খুব ভাল একটি অবস্থান তৈরি করতে সমর্থ হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি কিভাবে এত কম সময়ের মধ্যে বর্তমান অবস্থানে এল তা সম্পর্কে অন্য এক পোষ্টে  বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। শাওমির ইতিহাস নিয়ে লেখা পোষ্টটি উপরের লিংকে ক্লিক করে দেখে আসতে পারেন।

শাওমি মুলত একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। এরা মোবাইল ফোনসহ অন্যান্য কনজিউমার ইলেক্ট্রনিকস সামগ্রি উৎপাদন এবং বাজারজাত করে যাচ্ছে। এদের মোবাইল ফোনের  অপারেটিং সিস্টেম হল এনরয়েড। শাওমির অন্যান্য ইলেক্ট্রনিকস পণ্যের মধ্যে ফিটনেস ট্র্যাকার, স্মার্ট টিভি, এয়ার পিউরিফাইয়ার ইত্যাদি অত্যাধুনিক পন্য উল্লেখযোগ্য।

শাওমির অনেক মডেলের মোবাইল সেট রয়েছে। যার দামের পার্থক্যও চোখে পড়ার মত। সব শ্রেণীর মানুষের ক্রয় ক্ষমতা বিবেচনা করেই হয়ত তারা এরকম অভিনব ব্যবসায়িক কৌশল নিয়ে এগুচ্ছে। এটিও হতে পারে তাদের দ্রুত সাফল্যের কারণগুলির মধ্যে একটি। বাংলাদেশ এবং কি ইন্ডিয়ার বাজারে শাওমি অত্যান্ত জনপ্রিয় একটি হ্যান্ডসেট হিসাবে পরিচিতি লাভ করেছে।

তবে, হরেক রকমের মডেলের ভিতর আপনার সাধ্য বিবেচনায় শাওমি সবচেয়ে কম দামি ফোন খুজে পাওয়াটাও কিছুটা কষ্টসাধ্য হতে পারে। এজন্য, এই ডিজিটাল বিশ্বে খুব সহজেই যাতে আপনি ১০ হাজার টাকার মধ্যে শাওমি মোবাইল ফোনের সেটগুলির ভিতর আপনার পছন্দেরটি বেছে নিতে পারেন – সেই প্রয়াসকে সামনে নিয়েই আমার আজকের পোষ্ট।

নিচে শাওমি সবচেয়ে কম দামি ফোন সেটগুলোর তথ্য এক এক করে উল্লেখ করা হল-

Xiaomi Redmi Go

স্বল্প সময়ের ব্যবধানে নতুন নতুন মডেলের সেট বাজারে নিয়ে আসার একটি প্রবনতা রয়েছে শাওমি কম্পানির। এসব নতুন মডেলে নিত্য নতুন feature যোগ করে আকর্ষণিয় স্পেসিফিকেশনের ফোন খুব সহজেই গ্রাহকদের মন কেড়ে নেয়। এছাড়া, বিভিন্ন পর্যায়ের গ্রাহকদের ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনা করে বিভিন্ন দামের মধ্যে তাদের ফোন। যার ফলে অতি অল্প সময়ের মধ্যেই শাওমি মোবাইল ফোন বাংলাদেশের বাজারে খুব ভাল একটি অবস্থান তৈরি করতে সমর্থ হয়েছে। এ এরই ধারাবাহিকতায় সামনে এল xiaomi redmi go.

শাওমি রেডমি গো খুবই সাশ্রয়ী দামের ভিতরে একটি সেট। এর মুল্য বাংলাদেশি মুদ্রায় মাত্র ৭৪৯৯ টাকা যা নি:সন্দেহে নিম্ন আয়ের মানুষের স্মার্ট ফোন কেনার স্বপ্ন পূরণে সহযোগিতা করছে। দাম কম হওয়া সত্ত্বেও বৈশিষ্ট বিচারে এর নেই তেমন ঘাটতি। এর প্রোসেসর প্রাথমিক মানের যা দিয়ে আপনি জনপ্রিয় একশন গেম চালাতে পারবেন না। কিন্তু, এটি কথা বলা, মেসেজ ও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের apps চালানোর মত যথেষ্ট সক্ষমতা রয়েছে। এর ক্যামেরা দিয়ে প্রাথমিক পর্যায়ের মুল কাজগুলি আপনি করতে পারেন।

এটির RAM ও storage এর ক্ষমতা খুবই সীমিত কিন্তু আপনি অতিরিক্ত SD card লাগিয়ে নিতে পারবেন। এত কম দামের মোবাইল সেট হওয়া সত্ত্বেও এর স্ক্রিণ কিন্ত তুলনামুলক ভাল। ব্যাটারি স্থায়িত্ব কালও কম নয়।

যাহোক, এবার চলুন বিভিন্ন অংশের স্পেসিফিকেশন নিয়ে কথা বলি-

বিবরণপরিমান
র‌্যামর‌্যাম- ১ জিবি
 স্টোরেজ৮ জিবি
প্রোসেসরস্ন্যাপড্রাগন-৪২৫
ব্যাটারিব্যাটারি- ৩০০০ মিলি এম্পায়ার
ক্যামেরাসামনের- ৫ ও পিছনে- ৮ মেগাপিক্সেল
মুল্য৭৪৯৯ টাকা

 

Xiaomi redmi 1 S

আপনি যদি কম বাজেটের মধ্যে ভাল কনফিগারেশনের একটি সেট কিনতে চান তাহলে এই মডেলটি আপনার জন্য। এই দামের ভিতর অন্যান্য ব্র্যান্ডের হ্যান্ডসেটের তুলনায় এটি যথেষ্ট শক্তিশালি বলা যায়। শাওমি রেডমি ১ এস মডেলটি দেখতেও বেশ চমৎকার। এটি ৯.৯ মিলিমিটার পুরু এবং ১৬০ গ্রাম ওজন বিশিষ্ট একটি সেট।

শাওমি ব্র্যান্ডের প্রাথমিক পর্যায়ের সেটগুলির মধ্যে এটিও একটি যা দু’টি সিম সাপোর্ট করে। এর ডিসপ্লে সাইজ ৪.৭ ইঞ্চি যা ১২৮০x৭২০ রেজুলেশনের। এর স্পেসিফিকেশনের অন্যান্য বৈশিষ্ট নিচে তুলে ধরা হল-

 

বিবরণপরিমান
র‌্যামর‌্যাম- ১ জিবি
 স্টোরেজ৮ জিবি
প্রোসেসর1.6GHz quad-core
ব্যাটারিব্যাটারি- ২০০০ মিলি এম্পায়ার
ক্যামেরাসামনের- ১.৬ ও পিছনে- ৮ মেগাপিক্সেল
মুল্য৮৫০০ টাকা

 

Xiaomi Redmi Y1 Lite

শাওমি রেডমি y1 লাইট – মডেলটি বাজারে যাত্রা শুরু করে ২০১৭ সালের নভেম্বর থেকে। ফোনটির রয়েছে ৫.৫০ ইঞ্চি touchscreen ডিসপ্লে যার রেজুলেশন হল ৭২০x১২৮০ পিক্সেল। রেডমি y1 লাইটের রয়েছে শক্তিশালি প্রসেসর। এর শক্তিশালি কনফিগারেশন, চমৎকার ক্যামেরা এবং দীর্ঘ সময় যাবত সাপোর্ট দিতে পারে এমন ব্যাটারি – সব মিলিয়ে গ্রাহকদের নিকট একটি সুন্দর গ্রহণযোগ্য হ্যান্ড সেট হিসাবে পরিচিতি পেয়েছে।

বিস্তারিত কনফিগারেশন নিচে দেওয়া হল:

 

বিবরণপরিমান
র‌্যামর‌্যাম- ২ জিবি
 স্টোরেজ১৬ জিবি
প্রোসেসরQuad-Core 1.4GHz ARM Cortex A53 Clock Speed
ব্যাটারিব্যাটারি- ৩০৮০ মিলি এম্পায়ার লিথিয়াম আয়ন
ক্যামেরাসামনের- ৫ ও পিছনে- ১৩ মেগাপিক্সেল
মুল্য৮৭০০ টাকা

 

Xiaomi Redmi 6A

শাওমি রেডমি ৬ এ – মডেলটি বাংলাদেশের বাজারে চালু হয়েছে জুন, ২০১৮ সাল থেকে। এর সবচেয়ে গুরত্বপূর্ণ ফিচার হল- এর প্রধান ক্যামেরাটি ১৩ মেগা পিক্সেল সম্পন্ন। এই হ্যান্ডসেটে দুটি মডেল রয়েছে যার র‌্যাম ও স্টোরেজ ক্যাপাসিটি হল ২ জিবি/১৬ জিবি এবং ২ জিবি/৩২ জিবি পরিমানের। এক কথায় বলতে গেলে- এই দামের ভিতরে সেটটির কার্যক্ষমতা অসাধারণ।

বিস্তারিত কনফিগারেশন

 

বিবরণপরিমান
র‌্যামর‌্যাম- ২ জিবি
 স্টোরেজ১৬ জিবি
প্রোসেসরQuad-core, 2.0 GHz
ব্যাটারিব্যাটারি- ৩০০০ মিলি এম্পায়ার
ক্যামেরাসামনের- ৫ ও পিছনে- ১৩ মেগাপিক্সেল
মুল্য৮৯৯৯ টাকা

 

Xiaomi Redmi 4x

শাওমি রেডমি 4x সেটটির দাম ক্রেতা সাধারণের নাগালের ভিতরেই রাখা হয়েছে। মাত্র ৯৫০০/- টাকা। পণ্যটি ২০১৭ সালের মার্চের দিকে বাজারে চালু করা হয়েছে। ফোনটিতে ৫ ইঞ্চি টাচস্ক্রিণ ডিসপ্লে রয়েছে যার রেজুলেশন 720×1280 পিক্সেল। এটি এনরয়েড MIUI 8 ভার্সন দিয়ে চলে এবং এতে রয়েছে ৪১০০ মিলি এম্পিয়ারের নন রিমুভেবল ব্যাটারি। অর্থাৎ এর ব্যাটারি পরিবর্তন করা যায় না। এটি ন্যানো বা মাইক্রো সিমের দু’টি সিম সাপোর্ট করে।

এই মডেলের হ্যান্ড সেটের একটি অন্যতম প্রধান বৈশিষ্ট হল এটির লক-আনলক ফিঙ্গার প্রিন্ট দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। এটি বাংলাদেশের তরুন প্রজন্মের পছন্দের একটি সেট।

বিস্তারিত কনফিগারেশন:

 

বিবরণপরিমান
র‌্যাম২ জিবি | ৩ জিবি
 স্টোরেজ১৬ জিবি | ৩২ জিবি
প্রোসেসর1.4GHz octa-core
ব্যাটারিব্যাটারি- ৪১০০ মিলি এম্পায়ার
ক্যামেরাসামনের- ৫ ও পিছনে- ১৩ মেগাপিক্সেল
মুল্য৯৫০০ টাকা

 

Xiaomi Redmi 4a

শাওমি রেডমি 4a  বাংলাদেশের বাজারে যাত্রা শুরু করেছে নভেম্বর, ২০১৬ সাল থেকে। এর বাজার মুল ধরা হয়েছে ৯৫০০/- টাকা। এটি অধিকতর ভাল এবং দ্রুত গতিসম্পন্ন একটি সেট যা একাকিত্ব নিরসনে অবসরে আপনার ভাল একজন সঙ্গির ভূমিকা রাখতে পারে। এখানে রয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৪২৫ কোয়াড-কোর প্রসেসর এবং ৩০৩০ মিলি এম্পিয়ার ক্ষমতার একটি ব্যাটারি যা আপনাকে সারাদিন ধরে মোবাইল ব্যবহারে সাপোর্ট করতে পারে। এর ২ জিবি  র‌্যাম ও ইন্টারনাল স্টোরেজ ক্ষমতা ১৬ জিবি হয়। এছাড়া এটির আরেকটি ভার্সন আছে যেখানে ৩ জিবি র‌্যাম এবং ৩২ জিবি স্টোরেজ ক্ষমতা রয়েছে। দামের তুলনায় শাওমি রেডমি 4a  সার্বিক কর্মদক্ষতা প্রসংশনীয়।

স্পেসিফিকেশন নিচে দেওয়া হল:

 

বিবরণপরিমান
র‌্যাম২ জিবি
 স্টোরেজ১৬ জিবি
প্রোসেসর1.4GHz quad-core
ব্যাটারিব্যাটারি- ৩১২০ মিলি এম্পায়ার
ক্যামেরাসামনের- ৫ ও পিছনে- ১৩ মেগাপিক্সেল
মুল্য৯৫০০ টাকা

 

Xiaomi Redmi 8A Pro

শাওমি রেডমি ৮এ প্রো বাংলাদেশের বাজারে যাত্রা শুরু করেছে এপ্রিল, ২০২০ সালে। এর বাজার মুল্য ৯৯০০ টাকা। এটি কোয়ালকম এসডিএম৪৩৯ স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৯ প্রসেসর দিয়ে ক্ষমতা প্রাপ্ত। স্মার্টফোনটি ৬.২২ ইঞ্চির আইপিএস এলসিডি টাচস্ক্রিণ বিশিষ্ট যার রেজুলেশ হল 720 x 1520  পিক্সেল। এর স্ক্রিণটি Corning Gorilla গ্লাস দিয়ে সুরক্ষিত। ডিভাইসটির সামনের অংশ গ্লাস এবং পিছনের অংশ প্লাস্টিক আবরণ দিয়ে আবৃত।

বিস্তারিত কনফিগারেশন নিচে উল্লেখ করা হল:

 

বিবরণপরিমান
র‌্যাম২ জিবি | ৩ জিবি
 স্টোরেজ৩২ জিবি
প্রোসেসরOcta-core (4×1.95 GHz Cortex-A53 & 4×1.45 GHz Cortex A53)
ব্যাটারিব্যাটারি- ৫০০০ মিলি এম্পায়ার
ক্যামেরাসামনের- ৮ ও পিছনে- ১৩ মেগাপিক্সেল
মুল্য৯৯০০ টাকা

 

Xiaomi Redmi 9A

শাওমি রেডমি ৯এ স্মার্টফোনটি বাংদেশের বাজার launch হয়েছে জুলাই, ২০২০ সালে। এর বাজার মুল্য রাখা হয়েছে ৯৯৯৯/- টাকা। ১০০০০/-টাকার ভিতর এটিই হল সবচেয়ে দামি হ্যান্ড সেট। এই ফোনটি সেনসর দিয়ে উন্নত করা হয়েছে যার ফলে আপনি ফিঙ্গার প্রিন্ট দিয়ে লক ও আনলক করতে পারেন। এই স্মার্টফোনে ইনফ্রারেড পোর্ট, ইউএসবি ২.০ এবং ব্লুটুথ ৫.০ আছে। এটি বিভিন্ন দৃষ্টিনন্দন রঙে রঙিন করে বাজারে ছাড়া হয়েছে।

বিস্তারিত কনফিগারেশন নিচে উল্লেখ করা হল:

 

বিবরণপরিমান
র‌্যাম৩ জিবি
 স্টোরেজ৩২ জিবি
প্রোসেসরOcta-core 2.0 GHz Cortex-A53
ব্যাটারিব্যাটারি- ৫০০০ মিলি এম্পায়ার
ক্যামেরাসামনের- ৫ ও পিছনে- ১৩ মেগাপিক্সেল
মুল্য৯৯৯৯ টাকা

 

1 thought on “শাওমি সবচেয়ে কম দামি ফোন: খুজে নিন ১০০০০ টাকার মধ্যে আপনার শাওমি!”

  1. What’s Taking place I’m new to this, I stumbled
    upon this I’ve discovered
    It absolutely helpful and it has aided me
    out loads. I hope to contribute different users like its helped
    me. Great job.

Comments are closed.